Bangla

Short Introduction of Speaker (Bangla)

 

ড. শিরীন শীরমিন চৌধুরী, এমপি

মাননীয় স্পীকার

 

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, এমপি বাংলাদেশের প্রথম নারী স্পীকার । জাতীয় সংসদের আসন (২৪ রংপুর-৬) হতে নির্বাচিত সংসদ-সদস্য ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ৩০ জানুয়ারি ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ তারিখে ১১তম জাতীয় সংসদের স্পীকার হিসেবে শপথ নেন। ইতঃপূর্বে তিনি দশম জাতীয় সংসদের (২৪ রংপুর-৬) হতে সংসদ-সদস্য নির্বাচিত হয়ে দশম জাতীয় সংসদের স্পীকার নির্বাচিত হন এবং ২০১৩ সালের ৩০শে এপ্রিল তিনি নবম জাতীয় সংসদের স্পীকার নির্বাচিত হন। ২০০৯-২০১৩ পর্যন্ত মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনকালে তাঁর নেতৃত্ব ও তত্ত্বাবধানে জাতীয় নারী উন্নয়ন নীতি-২০১০, জাতীয় শিশু নীতি-২০১১, পারিবারিক সহিংসতা (প্রতিরোধ ও সুরক্ষা) আইন-২০১০ প্রণীত হয়। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ড. শিরীন ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৪ তিন বছরের জন্য কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারী এসোসিয়েশনের চেয়ারপার্সন নির্বাচিত হন।

 

ড. চৌধুরী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদ থেকে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান অধিকার করে ১৯৮৯ সালে এল.এল.বি (অনার্স) এবং ১৯৯০ সালে এল.এল.এম ডিগ্রী অর্জন করেন। কমনওয়েলথ স্কলার ড. চৌধুরী ২০০০ সালে যুক্তরাজ্যের এসেক্স ইউনিভার্সিটি থেকে মানবাধিকার ও সাংবিধানিক আইন বিষয়ে পি.এইচ.ডি ডিগ্রী অর্জন করেন। বাংলাদেশ সুগ্রীম কোর্টের একজন আইনজীবী হিসেবে জনস্বার্থ, মানবাধিকার ও সংবিধান বিষয়ক বিভিন্ন মামলা পরিচালনা করেছেন। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তিনি খণ্ডকালীন শিক্ষকতা করেছেন। ২০০৩ থেকে ২০০৯ সাল ল' রিপোর্ট জার্নাল “বাংলাদেশ লিগ্যাল ডিসিশনস (বিএলডি)”-এর সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

 

নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে উল্লেখযোগ্য ভূমিকার স্বীকৃতি স্বরূপ এশিয়া সোসাইটি ওয়াশিংটন ২০১০ সালে তাঁকে হিউম্যানিটারিয়ান সার্ভিস এওয়ার্ড এ ভূষিত করে । ১৬ জুলাই ২০১৪ তারিখে তাঁকে যুক্তরাজ্যের এসেক্স ইউনিভার্সিটি থেকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রী প্রদান করা হয়। নারীর উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নে তাঁর উল্লেখযোগ্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ The World Women Leadership Congress 2015 সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ভারতের মুম্বাই শহরে ড. চৌধুরী-কে World Women Leadership Award প্রদান করে। ২০১৩ সালে “সাপ্তাহিক অনন্যা” কর্তৃক “বছরের আলোচিত নারী, অনন্যা শীর্ষ দশ” নির্বাচিত হওয়ায় ২০১৪ সালের ২৭ আগস্ট তাঁকে “অনন্যা” পুরস্কারে ভূষিত করা হয়। এছাড়া তিনি ‘অগ্রণী ব্যাংক নারী সম্মাননা পদক-২০১৪’ লাভ করেন। বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের প্রথম নারী স্পীকারের পদ অলংকৃত করার জন্য তিনি ৮ই মার্চ, ২০১৯ বেগম বদরুন্নেসা আহমেদ ট্রাস্ট নারী সম্মাননা পদকে ভূষিত হন। ২০২১ সালে তিনি Bangladesh India Business council of women’s Indian Chamber of Commerce and Industry WICCI, এর পক্ষ থেকে WICCI Awards এ ভূষিত হন। মানবাধিকার, অন্তর্ভুক্তিমূলক টেকসই উন্নয়ন ও জেন্ডার সমতা বিষয়ে বিভিন্ন আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সম্মেলনে তিনি বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করে আসছেন।

 

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর স্বামী সৈয়দ ইশতিয়াক হোসাইন ফার্মাসিউটিক্যাল কনসালটেন্ট । দুই সন্তানের জননী ড. শিরীন শারমিন-এর জ্যেষ্ঠা কন্যা লামিসা শিরীন হোসাইন যুক্তরাষ্ট্রে ফাইন্যানসিয়াল এনালিস্ট পদে কাজ করছে ও কনিষ্ঠ পুত্র সৈয়দ ইবতেশাম রফিক হোসাইন ইউনাইটেড ওয়ার্ড কলেজে আই.বি কোর্সে অধ্যয়নরত ।